শনিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১; ৬:১৪ অপরাহ্ণ


ডেস্ক রিপোর্টঃ আন্দোলনের মুখে সরকার কোটা সংস্কার/বাতিল/পর্যালোচনার কমিটি গঠন করে দিলেও এই কমিটির সিদ্ধান্ত ছাত্রসমাজ গ্রহণ করবে কিনা সেটাই দেখার বিষয়। এই সময়ের মধ্যে অনেকেই বিভ্রান্ত হচ্ছেন যে আন্দোলন বুঝি স্থগিত হয়ে গেল।

বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের বেশ কয়েকজন কেন্দ্রীয় নেতা আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। কারণ এই আন্দোলনের শীর্ষনেতাদের প্রায় সবাই এখন পুলিশ ও ছাত্রলীগের হাতে বন্দী। অন্যতম শীর্ষ নেতা রাশেদ খাঁনকে ৫ দিনের জন্য রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ। এ অবস্থায় এই নেতৃবৃন্দের নিরাপত্তা ও মুক্তির দাবিতে আন্দোলন করে যাবে ছাত্র অধিকার পরিষদ।

আন্দোলন নিয়ে পরবর্তী নির্দেশনার জন্য সারাদেশের সংগ্রামী ভাই-বোনদের অপেক্ষা করতে বলা হচ্ছে।

সম্পর্কিত লেখা


আরও পড়ুন