, ১ জানুয়ারি ২০২১; ৩:২৮ অপরাহ্ণ


লেবাননে পুলিশ ও বিক্ষোভকারীদের মধ্যে তীব্র সংঘর্ষে উভয়পক্ষে ২২০ জনের বেশি আহত হয়েছেন। শনিবার এ সংঘর্ষ ঘটে। বিগত তিন মাস ধরে চলমান সরকার-বিরোধী বিক্ষোভে একদিনে সর্বোচ্চ আহতের ঘটনা এটি। এ খবর দিয়েছে টিআরটি ওয়ার্ল্ড।
খবরে বলা হয়, শনিবার বৈরুতজুড়ে সব ছাপিয়ে ছিল অ্যাম্বুলেন্সের আওয়াজ। রেড ক্রস জানিয়েছে, তারা ৮০ আহতকে হাসপাতালে নিয়ে গেছে। আরো ১৪০ জনকে ঘটনাস্থলেই চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

গত অক্টোবর থেকে লেবাননে সরকারবিরোধী বিক্ষোভ চলছে। চলতি সপ্তাহে অর্থনৈতিক মন্দার মধ্যে তা ফের চাঙ্গা হয়ে ওঠেছে।

বিক্ষোভকারীরা নতুন সরকার গঠনের জোর দাবি জানিয়েছে। কিন্তু এখন পর্যন্ত সে দাবি পূরণে তেমন অগ্রগতি দেখা যায়নি। এর মধ্যে শনিবার সহিংসতা প্রকট আকার ধারণ করেছে রাজধানী বৈরুতে। কয়েক ঘণ্টা যাবত পুলিশ ও বিক্ষোভকারীদের মধ্যে সংঘর্ষ চলেছে।

স্থানীয় গণমাধ্যম অনুসারে, প্রায় এক ডজন বিক্ষোভকারী তাদের মুখ ঢেকে পার্লামেন্টের পাহারায় থাকা পুলিশকে উদ্দেশ্য করে পাথর ছুড়লে সংঘর্ষের শুরু হয়। অনেকে ট্র্যাফিক সাইন ও ধাতম ব্যারিয়ার দিয়েও পুলিশের লাইনে হামলা চালিয়েছে। পাল্টা জবাবে নিরাপত্তা বাহিনী বিক্ষোভকারীদের ওপর জলকামান, কাঁদানে গ্যাস ছুড়েছে। দিন থেকে রাত পর্যন্ত গড়িয়েছে ধাও্যা-পাল্টা ধাওয়া।

দেশটির জাতীয় সংবাদ সংস্থা জানিয়েছে, অনেকে বৈরুতের মধ্যাঞ্চলে ব্যাংকে ঢুকে ভাংচুর করেছে। এছাড়া বিক্ষোভকারীদের তাবুতে অগ্নিসংযোগের ঘটনাও ঘটেছে।

লেবাননের অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তা বাহিনী এক টুইটে জানায়, পার্লামেন্টের সামনে দাঙ্গা নিয়ন্ত্রণকারী পুলিশের সঙ্গে সরাসরি ও সহিংস সংঘর্ষ চলছে। আমরা শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভকারীদের আহ্বান জানাচ্ছি তারা যেন, নিজেদের নিরাপত্তার স্বার্থে সংঘর্ষস্থল থেকে দূরত্ব বজায় রাখে।

সম্পর্কিত লেখা


আরও পড়ুন