, ১৩ জুন ২০২১; ৭:৫২ অপরাহ্ণ


ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে নির্মিত #Let’s_Talk আড্ডা ও দর্শন বেঞ্চটি ভেঙে দেয়া হয়েছে। হাসান মেহদি সিফাত আর ইকরাম হোসেন আজিম ঈদ বোনাসের টাকার সাথে বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনিয়রদের কাছ থেকে কিছু হেল্প নিয়ে এই বেঞ্চটি বানিয়েছিল। উল্লেখ্য এর আগে এখানে স্লাব ছিল যেটি ভেঙে দেওয়া হয়েছিল সেটা কে স্মরণ করে এটি বানানো হয়েছিলো।

সিফাত বলছেন-

আমরা শুধু একটা বেঞ্চ না একটা দর্শনের কথা বলেছিলাম। আমরা শুধু চেয়েছিলাম কথা বলতে। কথা বলার কালচার তৈরি করতে। আমাদের কথা ছিল, “আমরা কথা বলতে চাই, আমরা যেটা বলছি বা করছি সেটা ভুল হতেই পারে। আমরা চাই আপনারা শুধরে দিবেন। আমাদের সাথে কথা বলবেন।” আপনারা যদি কথা না বলে, শুধরে না দেন তাহলে আমরা সঠিক পথে চলবো কিভাবে। কষ্ট পেয়েছি খুব। আমরা আর বেঞ্চ বানাবো না। আমরা চাই আমাদের এই দর্শন টা ছড়িয়ে যাক, বেঞ্চ না। বেঞ্চ ভাঙা যায়, দর্শন না, আইডিয়া না। (বি:দ্র: আমি আমার চিন্তাই শুরু করি এইটা ভেবে যে, আমার চিন্তাই হয়ত ভুল।) ক্ষমাসুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন আর ভুল গুলো শুধরে দিবেন।

উল্লেখ্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সেন্ট্রাল লাইব্রেরির সামনে একটা লম্বা বেঞ্চ ছিল যাকে ইকোনোমিক্স বেঞ্চ বলা হতো। ২০০৯ সালে ঈদের বন্ধের সময় সে বেঞ্চটিও ভেঙ্গে ফেলা হয়। বর্তমানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে মুক্ত আড্ডার পরিসর সংকোচিত হয়ে আসছে। এ প্রেক্ষাপটে এই বেঞ্চগুলোর বুদ্ধিবৃত্তিক গুরুত্ব অনেক। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের এমন সিদ্ধান্ত বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের প্রাকৃতিক পরিবেশ ও মুক্তচিন্তার পরিসর ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে।

সম্পর্কিত লেখা


আরও পড়ুন