শুক্রবার, ২ জানুয়ারি ২০২১; ১১:২৭ অপরাহ্ণ


 

কোটা সংস্কার আন্দোলনের শীর্ষ নেত্রী নীলা যে কিনা পুলিশের বাধার মুখে অবস্থান অব্যহত রেখে আন্দোলনে প্রাণসঞ্চার করেছিল তার বাড়িতে হামলা চালিয়েছিল দুর্বৃত্তরা। গভীর রাতে জানালা দিয়ে মৃত সাপ ফেলে যাওয়ার মতো জঘন্য কাজ করে দুবৃত্তরা।

এবার তারা নীলার একটি ছবি ফটোশপে এডিট করে রিউমার ছড়ায় যে জঙ্গী হিসেবে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

এ প্রেক্ষাপটে নীলার একটি ফেসবুক স্ট্যাটাস সরাসরি পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হল-

“সবাই আমাকে নিয়ে উদ্বিগ্ন। আর আমি মা কে নিয়ে। আমার ছবি এডিট করে যেই ভূয়া আসলে ভূয়া বললে ভূয়া কে অপমান করা হবে, যেই মিথ্যা, বানোয়াট, নির্লজ্জ নিউজ করা হয়েছে যে, মুফতি হান্নান আমার মামা। তারপর আরো ইত্যাদি ইত্যাদি জঘন্য মন গড়া কথা।

ভয়ে ছিলাম মা এসব জানলে পেশার আরো হাই হয়ে যাবে। ভয় টা ই সত্যি হলো। এত রাতেও এক খালামনি আসছিল দেখতে আমি সত্যি ই গ্রেফতার হয়েছি কিনা। ভালবাসার মানুষ গুলো সত্যি ই ভাল থাকুক। এত রাতেও সে ছুটে আসছে কি হইছে জানতে। মা আবারও আরেকটা নির্ঘুম রাত পার করবে। যে বা যারা এই নিউজ টা বানিয়েছে তাদের বলছি, আমি ভাদ্র মাসের ক্ষ্যাপা কুকুর দেখিনি, আপনাকে/আপনাদের দেখেছি। আর কিছু বলতে চাইনা। রুচিতে বাধছে। কুকুর অনেক প্রভু ভক্ত প্রাণী, ওদের সাথে কুকুরের তুলনা দিয়ে হয়তো কুকুরকেই ছোট করলাম। আমি ভাল আছি সুস্থ আছি। বাড়িতেই আছি। একটা ন্যায্য আন্দোলনে এসেছি। কোন অন্যায় করিনি। যখন অন্যায় করিনি তখন ভয় পাবো কেন? পৃথিবীর কোন শক্তি নেই এই ন্যায্য অধিকার আদায়ের দাবি থেকে ফেরাতে পারে আমাদের। আমি চাচ্ছিলাম না কোন নরকের কীটের করা মিথ্যাচার নিয়ে লিখতে। কারণ আমি বিশ্বাস করি কুকুরের কাজ কুকুরে করবেই।


অধ্যাপক বাবার মেয়ে,কোন ঘুষের টাকায় কিংবা অন্যদের অধিকার হরণ করে খাওয়া টাকায় বড় হয়নি। বাবার সৎ পথে অর্জিত টাকায় বড় হয়েছি। কোন কাপুরুষ,কুলাঙ্গার,অধিকার হরণকারী, মীরজাফরের ঘরে বড় হয়নি। শিক্ষকের রক্ত বইছে শরীরে। অন্যায় কে অন্যায় ই বলতে শিখেছি।
আমি নলখাগড়া ভাঙবার তবে মচকাবার নহে।”

সম্পর্কিত লেখা


আরও পড়ুন